BrandsView All

Show More Brands
August 15, 2022

BestMaza.Org

Unboxing | Technical News | Reviews

Thinnest Watch: বাজারে এল বিশ্বের সবচেয়ে পাতলা হাতঘড়ি, কিনতে হলে বেচতে হতে পারে ভিটে-মাটি!

Spread the love

‘শখ’ এমন একটি শব্দ যা প্রত্যেকটি মানুষের জীবনের সাথেই অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত। কিছু মানুষের শখ নেহাতই ছোটো, আবার কারোর শখ বিচিত্র ও বিলাসিতাপূর্ণ! তবে একাংশ মানুষের ক্ষেত্রে অন্যতম শখের জিনিস হল হাতঘড়ি। এমনিতে স্মার্টফোন আসার পর ঘড়ির ব্যবহার অনেকটাই কমে গিয়েছে, কিন্তু এখনও এমন অনেকেই আছেন যারা নিজেদের কব্জিতে একটি হাতঘড়ি রাখা একান্ত আবশ্যক তথা ফ্যাশনেবল বলে মনে করেন। আবার বেশিরভাগ বিত্তশালীরও অত্যন্ত পছন্দের একটি জিনিস হল হাতঘড়ি। বাজারে বিভিন্ন রেঞ্জের নানারকম ডিজাইনের ঘড়ি পাওয়া যায়, কিন্তু আজকের এই প্রতিবেদনে আমরা আপনাদেরকে এমন একটি ঘড়ির কথা জানাতে চলেছি যেটির দামে চার-চারটি ফেরারি (Ferrari) গাড়ি কিনে ফেলা সম্ভব! কি, শুনে মাথাটা ঘুরে গেল নিশ্চয়ই? তবে চূড়ান্ত অবিশ্বাস্য বলে মনে হলেও কথাটা কিন্তু ১০০% খাঁটি। সত্যি সত্যিই হালফিলে মার্কেটে এমনই একটি ঘড়ি লঞ্চ হয়েছে যার আকাশছোঁয়া দাম শুনে বহু মানুষেরই চোখ কপালে উঠছে। কী এমন আছে ঘড়িটিতে? আসুন এই বিষয়ে একটু বিশদে জেনে নেওয়া যাক।

লঞ্চ হল মাত্র ৩০ গ্রাম ওজনের বিশ্বের সবচেয়ে পাতলা ঘড়ি

গত সপ্তাহে সুইস কোম্পানি রিচার্ড মিলে (Richard Mille) বিশ্বের সবচেয়ে পাতলা ঘড়ি লঞ্চ করেছে। দামি ঘড়ি প্রস্তুতকারক হিসেবে গোটা বিশ্বে বিশেষভাবে পরিচিত এই কোম্পানিটি দুর্দান্ত স্পোর্টস ঘড়ি তৈরির জন্য বিখ্যাত এবং সংস্থার ঘড়ি জনপ্রিয় টেনিস খেলোয়াড় রাফায়েল নাদালের হাতেও দেখা যায়। সেক্ষেত্রে কোম্পানির পক্ষ থেকে নবাগত ঘড়িটির নাম দেওয়া হয়েছে আরএম আপ-০১ (RM UP-01)। আর এই ঘড়িটি এতটাই পাতলা যে, এর তুলনায় স্ট্র্যাপগুলিকেও অনেক বেশি মোটা বলে মনে হয়। স্ট্র্যাপসমেত ঘড়িটির ওজন মাত্র ৩০ গ্রাম।

Ferrari-র সাথে হাতে হাত মিলিয়ে ৬,০০০ ঘণ্টায় তৈরি হয়েছে এই ঘড়ি

সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে যে, ৪৫ ঘণ্টার পাওয়ার রিজার্ভসহ আসা এই ঘড়িটি তৈরি করতে সময় লেগেছে ৬,০০০ ঘণ্টা। ইতালীয় বিলাসবহুল স্পোর্টস কার প্রস্তুতকারক ফেরারির সাথে যৌথভাবে এই পাতলা ঘড়িটি ডিজাইন করা হয়েছে। তাই এই ঘড়িতে রিচার্ড মিলের লোগোর পাশাপাশি ফেরারির লোগোও দেখা যাবে। এদিকে, মাত্র ১.৭৫ মিলিমিটার পুরু এই ঘড়িটিতে দুটি ক্রাউন রয়েছে; এর মধ্যে একটি হ্যান্ড-সেটিং ফাংশন সেট করতে এবং অন্যটি এটিকে অ্যাক্টিভেট করতে ব্যবহার করা যেতে পারে। ঘড়িটি তৈরি করতে ৯০% টাইটেনিয়াম, ৬% অ্যালুমিনিয়াম এবং ৪% ভ্যানাডিয়াম ব্যবহার করা হয়েছে।

মাত্র ১৫০ পিস এসেছে বাজারে

সংস্থার পক্ষ থেকে আরও বলা হয়েছে যে, আপাতত এই ঘড়িটির মাত্র ১৫০ ইউনিট (পিস) তৈরি করা হয়েছে। Richard Mille-র এই পাতলা ঘড়িটির দাম ১ কোটি ৮৮ লাখ ডলার (প্রায় সাড়ে ১৪ কোটি টাকা), যাতে চার-চারটি ফেরারি পোর্টোফিনো (Ferrari Portofino) কিনে ফেলা যায়। উল্লেখ্য যে, এর আগে বিশ্বের সেরা মাইক্রো-ওয়াচ তৈরির রেকর্ডটি ছিল প্রখ্যাত কোম্পানি বুলগারি (Bulgari)-র ঝুলিতে। সংস্থাটি চলতি বছরের গোড়ার দিকে ১.৮০ মিলিমিটারের অক্টো ফিনিসিমো আল্ট্রা (Octo Finissimo Ultra) নামক ঘড়িটি তৈরি করে এই রেকর্ড হাসিল করেছিল। তবে এবার সেই রেকর্ড ভেঙে বিশ্বের সবচেয়ে পাতলা ঘড়ি তৈরির খেতাব নিজেদের পকেটে পুড়ল Richard Mille।

%d bloggers like this: