BrandsView All

Show More Brands
July 7, 2022

BestMaza.Org

Unboxing | Technical News | Reviews

WhatsApp Scam: ২৫ লক্ষ টাকা পুরষ্কার জেতার নামে এই ভুয়ো মেসেজ পাঠাচ্ছে হ্যাকাররা, ফাঁদে পা দেবেন না

Spread the love

ভারতে কৌন বনেগা ক্রোড়পতি বা KBC (কেবিসি)-র নাম শোনেনি, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া প্রায় দুষ্কর বললেই চলে। শুধুমাত্র এই শো-টিই নয়, এর হোস্ট বলিউডের শাহেনশাহ অমিতাভ বচ্চন‌ও সকল দেশবাসীর কাছে সমানভাবে জনপ্রিয়। প্রায় প্রতিটি দর্শক‌ই কখনও না কখনও এই শো-টি দেখার সময় একবার হলেও মনে মনে ভাবেন যে, ‘জীবনে অন্তত একবার যদি মিস্টার বচ্চনের সামনে হটসিটে বসার সুযোগ পাওয়া যেত’ অথবা কোনোভাবে জেতা যেত পুরষ্কার! কিন্তু বর্তমান সময়ে সাধারণ মানুষের এই ধরনের ইচ্ছা এবং টাকা জেতার লালসাকে কাজে লাগিয়ে এক শ্রেণির অসৎ মানুষ তাদের পকেট ভারী করে চলেছে, আর এর ফলস্বরূপ প্রায়শই নিত্যনতুন WhatsApp (হোয়াটসঅ্যাপ) স্ক্যামের খবর সামনে আসছে যেখানে ইউজারদেরকে ভুয়ো মেসেজ পাঠিয়ে মোটা টাকা জেতার প্রলোভন দেখিয়ে তাদের অ্যাকাউন্ট সাফ করছে হ্যাকাররা। দীর্ঘদিন ধরেই KBC-কে কেন্দ্র করে এই ধরনের হাজারো ঘটনা ঘটছে, তবে সম্প্রতি আবারও একবার WhatsApp-কে কাজে লাগিয়ে ইউজারদেরকে প্রতারিত করতে কোমর বেঁধে মাঠে নেমে পড়েছে স্ক্যামাররা।

 

KBC গেমের নামে WhatsApp স্ক্যাম

সম্প্রতি এক রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, স্ক্যামাররা হোয়াটসঅ্যাপে ‘কেবিসি জিও’ (KBC Jio) লাকি ড্র-এর একটি মেসেজ পাঠিয়ে ইউজারদের সাইবার জালিয়াতির ফাঁদে ফেলার চেষ্টা করছে। এই স্ক্যামে ইউজারদেরকে একটি ভিডিও পাঠাচ্ছে সাইবার আক্রমণকারীরা, যেখানে ২৫ লাখ টাকা জেতার একটি পদ্ধতির সম্পর্কে বিশদে বলা থাকছে। আর সেইসাথে এও উল্লেখ থাকছে যে, এই মোটা টাকা লটারি জেতার জন্য ব্যবহারকারীদের কিছু পার্সোনাল ডিটেইলস শেয়ার করতে হবে যার মধ্যে রয়েছে পাসপোর্ট সাইজের ছবি, আধার কার্ডের মতো অন্যান্য বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি।

সেক্ষেত্রে মোটা টাকা জেতার আশায় ইউজাররা হ্যাকারদের এই সমস্ত ডিটেইলস প্রদান করলে স্ক্যামাররা ব্যবহারকারীদের কাছে একটি ডকুমেন্ট পাঠায়, যেখানে কর হিসেবে ইউজারদেরকে কয়েক হাজার টাকা জমা করার কথা বলা হয়। স্ক্যামাররা ব্যবহারকারীদেরকে জানায় যে, ওই টাকাটা জমা করার পরই তাদের অ্যাকাউন্টে মোটা টাকার পুরস্কার মূল্যটি ট্রান্সফার করা হবে। চলতি সময়ে চোখকান খোলা রাখলে বিভিন্ন বিষয়কে কেন্দ্র করে এই ধরনের একাধিক ঘটনার খবর আকছার শোনা যায়। ফলে আপনারা খুব স্বাভাবিকভাবেই বুঝতে পারছেন যে, পুরো বিষয়টিই ভুয়ো। ইউজাররা এই ধরনের মেসেজের রিপ্লাই করলে তাদের অ্যাকাউন্টে কোনো টাকা তো জমা পড়বেই না, বরং পার্সোনাল ডিটেইলসের অ্যাক্সেস পেয়ে গিয়ে তাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট পুরোপুরিভাবে সাফ করে দেবে হ্যাকাররা।

 

তবে শুধু ভিডিও নয়, ইউজারদেরকে প্রতারণার জালে ফাঁসাতে কখনো কখনো তাদেরকে ভয়েস মেসেজও পাঠাচ্ছে হ্যাকাররা। ইংরেজি এবং হিন্দি উভয় ভাষাতেই এই জাল মেসেজগুলি সেন্ড করা হয়, যাতে বানান এবং ব্যাকরণগত বেশ কিছু ভুল থাকে। আর ইউজারদের মনে যাতে বিন্দুমাত্র সন্দেহের উদ্রেক না হয়, তাই ভুয়ো মেসেজটির সঙ্গে স্ক্যামাররা KBC-র লোগো এবং Sony Liv-এর একটি ছবিও পাঠায়। সেক্ষেত্রে নিজেদের কষ্টার্জিত ধনরাশিকে সুরক্ষিত রাখতে চাইলে ব্যবহারকারীদেরকে এই ধরনের কোনো মেসেজের রিপ্লাই না দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন সাইবার বিশেষজ্ঞরা। এবং সেইসাথে একথাও জানিয়েছেন যে, বারংবার যদি এই জাতীয় মেসেজ WhatsApp-এ আসতে থাকে, তাহলে ইউজাররা যেন অবিলম্বে সাইবার পুলিশ স্টেশনে গিয়ে রিপোর্ট করেন। সবসময় মনে রাখবেন, KBC-র নামে জোচ্চুরি চালিয়ে যাওয়া হ্যাকারদের দলকে আটকাতে যথাযথ সতর্কতা অবলম্বন করাই এক এবং একমাত্র উপায়!

%d bloggers like this: