BrandsView All

Show More Brands
August 15, 2022

BestMaza.Org

Unboxing | Technical News | Reviews

মামলায় জিত Nokia-র, এই দেশে ব্যান হল Oppo ও OnePlus

Spread the love

ফিনল্যান্ডের জনপ্রিয় স্মার্টফোন নির্মাতা Nokia এর কারণে Oppo জার্মানিতে বড়োসড়ো আইনি ধাক্কার সম্মুখীন হল। Nokiamob.net ওয়েবসাইটের একটি সাম্প্রতিক রিপোর্ট অনুসারে, জার্মানির মানহাইমের একটি আঞ্চলিক আদালত Oppo বিরুদ্ধে দায়ের করা পেটেন্ট লঙ্ঘনের মামলায় Nokia সংস্থার পক্ষে রায় দিয়েছে। তবে Oppo এছাড়াও, অপর একটি চীনা সংস্থা OnePlus -কেও আদালতে টেনেছে Nokia। আলোচ্য দুটি সংস্থার বিরুদ্ধে আনা মোকাদ্দমাতে জয় লাভ করেছে ফিনল্যান্ড ভিত্তিক ব্র্যান্ডটি। আদালতের সিদ্ধান্তে Oppo এবং OnePlus সংস্থা দুটির স্মার্টফোনকে ব্যান করা হয়েছে জার্মানির মার্কেটে। প্রসঙ্গত, ২০২১ সালে জার্মান ছাড়াও আরো চারটি ভিন্ন দেশে Oppo এর বিরুদ্ধে মামলা করেছিল Nokia।

আদালতের সিদ্ধান্তে জার্মানে নিষিদ্ধ হল Oppo এবং Oneplus ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন

আদালতের রায়কে মান্যতা দিয়ে, এখন থেকে জার্মানিতে ওপ্পো এবং ওয়ানপ্লাস ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন বিক্রি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। অর্থাৎ, জার্মানির মানুষ এখন থেকে আর আলোচ্য দুটি চীনা সংস্থার হ্যান্ডসেট ব্যবহার থেকে বঞ্চিত হবেন। যদিও, ওপ্পোর বিরুদ্ধে আনা এই পেটেন্ট বিরোধী মামলার প্রথম শুনানিতে জয়ী হয়েছে নোকিয়া। ফলে, পরবর্তী শুনানি না হওয়ার পর্যন্ত সাময়িক ভাবে আদালতের সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে। অর্থাৎ, যদি দ্বিতীয় শুনানির ফল ওপ্পো এবং ওয়ানপ্লাসের পক্ষে আসে, তবে জার্মানিতে সংস্থা দুটি হয়তো পুনরায় তাদের মোবাইল বিক্রি শুরু করতে পারবে।

কোন ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে মামলা দায়ের করেছে Nokia?

২০২১ সালের জুলাই মাসে, ভারত, মার্কিন যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স এবং জার্মানি সহ এশিয়া ও ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশে ওপ্পোর বিরুদ্ধে পেটেন্ট লঙ্ঘনের মামলা দায়ের করেছিল নোকিয়া। মামলায় ওপ্পোকে বৈধ লাইসেন্স ছাড়াই তাদের ডিভাইসে নোকিয়া দ্বারা পেটেন্ট করা ওয়াই-ফাই কানেকশন স্ক্যান করার প্রযুক্তি ব্যবহার করার অভিযোগ আনা হয়েছে। জানিয়ে রাখি, চীন ও ফিনল্যান্ডের সংস্থা দুটি ২০১৮ সালের নভেম্বরে একটি চুক্তিতে আবদ্ধ হয়েছিল, যার মেয়াদ ২০২১ সালের জুন মাসে শেষ হয়ে গেছে।

এই বিষয়ে নোকিয়ার মন্তব্য, ওপ্পো তাদের “নিরপেক্ষ এবং ন্যায্য” প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে। “আমরা আমাদের পেটেন্ট লাইসেন্সিং চুক্তি নবায়ন করার জন্য ওপ্পোর সাথে আলোচনা করেছিলাম। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত, তারা আমাদের যুক্তিসঙ্গত প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে। মামলা সর্বদাই আমাদের শেষ অবলম্বন এবং আমরা বন্ধুত্বপূর্ণভাবে বিষয়টি সমাধান করার জন্য স্বাধীন ও নিরপেক্ষ সালিসিতে প্রবেশ করার প্রস্তাব দিয়েছিলাম। আমরা এখনও বিশ্বাস করি যে এই বিবাদের নিস্পত্তি করার এটাই হবে সবচেয়ে ভালো উপায়।”

ওপ্পো, নোকিয়া দ্বারা রূজু করা এই মামলাটিকে জঘন্য কান্ড বলে অভিহিত করেছে। ওপ্পোর বিবৃতি অনুসারে, “কোম্পানি নিজের ও থার্ড পার্টি ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টি রাইটসকে সম্মানের সাথে রক্ষা করে এবং ইন্ডাস্ট্রি পেটেন্ট লাইসেন্সিং সহযোগিতার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।” নোকিয়ার ‘অন্যায্য’ মামলার বিরুদ্ধে ২০২১ সালের সেপ্টেম্বরে চীন এবং ইউরোপে উক্ত সংস্থার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি কাউন্টার মামলাও দায়ের করেছিল ওপ্পো৷ এই পেটেন্টগুলিতে ৫জি (5G) স্ট্যান্ডার্ড সংক্রান্ত পেটেন্টও সামিল আছে৷

Apple এবং Lenovo সংস্থাকেও আদালতের চৌকাঠে এনে দাঁড় করেছিল Nokia

জানিয়ে রাখি, ওপ্পো প্রথম সংস্থা নয় যার বিরুদ্ধে নোকিয়া মামলা করেছে। ২০১৭ সালের মে মাসে, অ্যাপল (Apple) একটি পেটেন্ট মামলা নিষ্পত্তি করার জন্য নোকিয়াকে ২ বিলিয়ন ডলার প্রদান করেছিল। যদিও, সংস্থা দুটি দ্রুতই তাদের বিবাদ সমাধান করেছিল এবং বর্তমানে একজোট হয়ে বিভিন্ন প্রযুক্তি বিকাশে কর্মরত আছে। নোকিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল, ভারত এবং জার্মানিতে আরেকটি চীনা সংস্থা লেনোভোর (Lenovo) বিরুদ্ধেও পেটেন্ট লঙ্ঘনের মামলা দায়ের করেছিল। এই মামলা প্রায় এক বছর ধরে চলে এবং অবশেষে ২০২২ সালের এপ্রিলে দুটি সংস্থা নিজেদের মধ্যে ব্যাপারটা নিষ্পত্তি করে নেয়।

%d bloggers like this: