BestMaza.Org

Unboxing | Technical News | Reviews

Smartphone Demand: অতিমারীর ধাক্কায় হু হু করে পড়ছে স্মার্টফোনের চাহিদা, বাজারে ২০ কোটির কম হ্যান্ডসেট

Spread the love

কোভিড অতিমারী ও তার পরবর্তী পর্যায়ে সারা বিশ্বের অর্থনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষিতে স্মার্টফোন, ল্যাপটপ, পার্সোনাল কম্পিউটারের চাহিদা নেমে গিয়েছে তলানিতে। এমনই তথ্য উঠে এসেছে সমীক্ষায়। এক শীর্ষ স্থানীয় চিনা চিপ-উৎপাদক সংস্থার তরফে সতর্ক করে বলা হয়েছে ক্রম হ্রাসমান চাহিদার প্রেক্ষিতে ২০২২ সালে প্রায় ২০ কোটি হ্যান্ডসেট উধাও হয়ে যেতে পারে বাজার থেকে। তারই সঙ্গে দোসর হয়েছে চিনের সাম্প্রতিক লকডাউন, আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা প্রভৃতি।

 

চিনের এক সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে চিপ উৎপাদনকারী ওই সংস্থা Semiconductor Manufacturing International Corporation (SMIC)-এর মতে লকডাউনের ফলে এ বছর প্রায় ২০০ মিলিয়ন স্মার্টফোন কম পাওয়া যাবে বাজারে। SMIC-এর আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছে, বৈদ্যুতীন যন্ত্রের প্রতি গ্রাহকের চাহিদা কমছে। অদূর ভবিষ্যতে তা পুনরুদ্ধারের সম্ভাবনাও কম।

 

তারই পাশাপাশি সাংহাইয়ে সাম্প্রতিক লকডাউনের ফলে বর্তমান ত্রৈমাসিকে প্রায় ৫ শতাংশ উৎপাদন ব্যহত হচ্ছে বলে খবর। গত শুক্রবার SMIC-এর Co-CEO ঝাও হাইজুন বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি জুন মাস শেষ হওয়ার আগেই উৎপাদনের ক্ষতি খানিকটা পূরণ করে নেওয়ার। এ জন্য সাংহাইয়ের বাইরের কারখানাগুলিকে যথা সম্ভব কাজে লাগানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।’ তাঁর দাবি, স্মার্টফোন উৎপাদক বহু সংস্থাই তাদের বরাত ফেরত নিয়ে নিয়েছে। শুধু চিনেই প্রায় ২০০ মিলিয়ন কম স্মার্টফোন কম রাখা হবে বাজারে।

 

সংস্থার দাবি, ২০২২ সালের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে প্রায় ৫ শতাংশ ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। এমনকী SMIC-র তরফে জানা গিয়েছে তাদের যন্ত্রাংশ চালানের কাজেও বেশ খানিকটা দেরি হচ্ছে। ব্যহত হচ্ছে উৎপাদন। চিনা চিপ উৎপাদক ওই সংস্থার কাছে আরও একটি চ্যালেঞ্জ হল আমেরিকার নিষেধাজ্ঞা।

 

সম্প্রতি চিনের মূল ভূখণ্ডে প্রায় ২২২ টি কোভিড ১৯ সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে নতুন করে। এর মধ্যে ১৪৪ জন আক্রান্তই সাংহাইয়ের। এর বাইরে সাংহাইতে প্রায় 13০৫ জনের স্থানীয় সংক্রমণ ঘটেছে বলে খবর যাঁরা উপসর্গহীন। সব মিলিয়ে ১৬৩০ জন আক্রান্তের হদিশ মিলেছে মেনল্যান্ড চায়নায়।

%d bloggers like this: