BrandsView All

Show More Brands
August 14, 2022

BestMaza.Org

Unboxing | Technical News | Reviews

iQOO 9T চুপিচুপি ভারতে লঞ্চ হল, Snapdragon 8+ Gen 1 প্রসেসর সহ রয়েছে দুর্দান্ত ক্যামেরা

Spread the love

iQOO 9T স্মার্টফোনের ভারতে লঞ্চের তারিখ ২রা আগস্ট নির্ধারণ করা হয়েছিল। কিন্তু আকস্মিক কোনো ঘোষণা ছাড়াই ৪ দিন আগেই অর্থাৎ আজ আলোচ্য ফোনটিকে এদেশে অফিসিয়াল করে দিলো IQOO। এটি চীনে আগত iQOO 10 স্মার্টফোনের রি-ব্র্যান্ডেড ভার্সন রূপে এসেছে। ফিচার হিসাবে এতে, FHD+ ডিসপ্লে প্যানেল, ২৫৬ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ, ৫০ মেগাপিক্সেল মুখ্য সেন্সর সমন্বিত ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা ইউনিট এবং ১২০ ওয়াট ওয়্যারড ফাস্ট চার্জিং টেকনোলজি সমর্থিত বড় ব্যাটারি পাওয়া যাবে। সর্বোপরি উক্ত হ্যান্ডসেটে কোয়ালকমের লেটেস্ট স্ন্যাপড্রাগন ৮+ জেন ১ চিপসেট এবং ভিভো ভি১+ ইমেজ প্রসেসিং চিপ সমন্বিত আছে। চলুন iQOO 9T প্রিমিয়াম স্মার্টফোনের দাম, সেলের তারিখ এবং বিশেষত্ব বিশদে জেনে নেওয়া যাক।

ভারতে আইকো ৯টি -এর দাম ও লভ্যতা (iQOO 9T Price and Availability in India)

ভারতে, আইকো ৯টি স্মার্টফোনকে দুটি ভিন্ন স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে নিয়ে আসা হয়েছে। যার মধ্যে ৮ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ যুক্ত বেস মডেলটি ৪৯,৯৯৯ টাকার প্রাইজ ট্যাগ সহ এসেছে। আর, ১২ জিবি র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ৫৪,৯৯৯ টাকা রাখা হয়েছে। এটিকে – আলফা (ব্ল্যাক) এবং লিজেন্ড (বিএমডব্লিউ এম মোটরস্পোর্ট) কালার বিকল্পে বেছে নেওয়া যাবে।

প্রাপ্যতার কথা বললে, আইকো আনীত এই নয়া হ্যান্ডসেটটি আগামী ২রা আগস্ট দুপুর ১২:৩০টায় সংস্থার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট (iQOO.com) এবং ই-কমার্স সাইট অ্যামাজন ইন্ডিয়ার (Amazon India) বিক্রির জন্য উপলব্ধ হবে। আর লঞ্চ অফার হিসাবে, গ্রাহকেরা ICICI ব্যাঙ্কের কার্ড ব্যবহার করে ইএমআই ট্রানজ্যাকশন করলে ফ্লাট ৪,০০০ টাকার ইনস্ট্যান্ট ডিসকাউন্ট পেয়ে যাবেন। আবার পুরোনো মোবাইল আপগ্রেড করার ক্ষেত্রে ৫,০০০ টাকা পর্যন্ত (নন-আইকো ডিভাইস) বা ৭,০০০ টাকা পর্যন্ত (আইকো ডিভাইস) এক্সচেঞ্জ বোনাসও হস্তগত করা যাবে।

আইকো ৯টি -এর স্পেসিফিকেশন (iQOO 9T Specifications)

আগেই বলেছি, ভারতে সদ্য ঘোষিত আইকো ৯টি স্মার্টফোনটি হল চীনে আগত iQOO 10 মডেলের রিব্র্যান্ডেড ভার্সন। ফলে আলোচ্য দুটি ডিভাইসের স্পেসিফিকেশনও অনুরূপ। সেক্ষেত্রে আইকো ৯টি একটি ৬.৭৮-ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস (২৪০০x১০৮০ পিক্সেল) স্যামসাং E5 AMOLED ডিসপ্লে সহ এসেছে। এই ডিসপ্লে প্যানেল স্কট সেন্সেশন ইউপি (Schott Xensation UP) গ্লাসের একটি স্তর দ্বারা সুরক্ষিত এবং ১২০ হার্টজ পর্যন্ত রিফ্রেশ রেট, ১৫০০ নিট পিক ব্রাইটনেস, HDR10 এবং ১০০% DCI-P3 কালার গ্যামেট সমর্থন করে।

পারফরম্যান্সের জন্য ফোনটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮+ জেন ১ প্রসেসরের সাথে সজ্জিত হয়ে এসেছে। একই সাথে, ইমেজ প্রসেসিং এবং ডিসপ্লে অপ্টিমাইজেশানের জন্য উক্ত ডিভাইসে ভিভো ভি১+ (Vivo V1+) চিপ ব্যবহার করা হয়েছে৷ এটি অ্যান্ড্রয়েড ১২ ভিত্তিক ফানটাচওএস ১২.১ কাস্টম ওএস দ্বারা চালিত। কথিত হ্যান্ডসেটে ১২ জিবি LPDDR5 র‌্যাম এবং ২৫৬ জিবি UFS 3.1 স্টোরেজ রয়েছে। উল্লেখ্য, আইকো তাদের নতুন স্মার্টফোনের সাথে ৩টি অ্যান্ড্রয়েড আপডেট এবং ৪ বছরের সিকিউরিটি আপডেট দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে৷

ক্যামেরা ফ্রন্টের কথা বললে, iQOO 9T স্মার্টফোনের ব্যাক প্যানেলে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ রয়েছে। এই ক্যামেরাগুলি হল – OIS সমর্থিত ৫০ মেগাপিক্সেল Samsung ISOCELL GN5 প্রাইমারি সেন্সর, ১৩ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড + ম্যাক্রো লেন্স, এবং ২এক্স অপটিক্যাল লেন্স সহ ১২ মেগাপিক্সেল Sony IMX663 সেন্সর৷ আর ডিভাইসের সামনের দিকে পাঞ্চ-হোল কাটআউটের মধ্যে একটি ১৬ মেগাপিক্সেলের সেলফি শুটার উপস্থিত।

iQOO 9T ফোনের কানেক্টিভিটি অপশনের মধ্যে সামিল রয়েছে – 5G, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ৫.২, ডুয়াল সিম স্লট, GNSS, NFC এবং একটি ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট৷ এতে ডুয়াল স্টেরিও স্পিকার এবং আরো ভালো তাপ অপসারণের জন্য ভিসি লিকুইড কুলিং সিস্টেম বর্তমান। আবার সিকিউরিটি ফিচার হিসাবে এতে ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর মিলবে। পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য iQOO 9T স্মার্টফোনে ১২০ ওয়াট ওয়্যারড ফাস্ট চার্জিং সমর্থন সহ ৪,৭০০ এমএএইচ ক্যাপাসিটির ব্যাটারি আছে। পরিশেষে, আইকোর এই নয়া মডেলটি IP52 রেটিং প্রাপ্ত।

%d bloggers like this: